দেশজুড়ে

১৪ বছরের কিশোরী হারিয়ে গেছে, খোজে পেতে প্রয়ো’জন একটি শে’য়ার

টাঙ্গাইলের সখিপুরে সাদিয়া আফরিন তৃণা (তিথী) নামে ১৪ বছরের এক কিশোরী নিখোঁ’জ হয়েছে। গতকাল বৃহস্পতিবার (১৫ অক্টোবর)

উপজে’লার ৫ নম্বর ওয়ার্ড থেকে সাদিয়া আফরিন তৃণা নিখোঁ’জ হয়। এখন পর্যন্ত তার কোনও খোঁ’জ পাওয়া যায়নি। নিখোঁ’জ সাদিয়া আফরিন তৃণার খালাতো ভাই আব্দুল্লাহ আল মামুন (সজিব) বলেন, সাদিয়া আফরিন তৃণা গতকাল বৃহস্পতিবার (১৫ অক্টোবর) সখিপুরের ৫ নম্বর ওয়ার্ড থেকে নিখোঁ’জ হয়।

সাদিয়া আফরিন ওই দিন সকাল ৭টা ৩০ মিনিটে উপজে’লার শাহীন স্কুল ১ নম্বর শাখায় (জে’লখানা মোড় রোড) প্রাইভেট পড়তে বাসা থেকে বের হয়। এরপর থেকে এখন পর্যন্ত তার কোনও খোঁ’জ পাওয়া যায়নি। মেয়েটি নবম শ্রেণিতে পড়তো। ওর পড়নে ছিল ধূসর রঙের সুন্নতী বোরখা। আর সাথে স্কুলব্যাগ ছিল। মেয়েটির গায়ের রঙ ফর্সা।

তার উচ্চতা ৫ ফুট ২ ইঞ্চি। যদি কোন হৃদয়বান ব্য’ক্তি তার সন্ধান পেয়ে থাকেন দয়া ক’রে নিন্মোক্ত নাম্বারে যোগাযোগ করবেন । → ০১৯২৯০২৫২৪২ → ০১৭৬৩৯৫৪৭৯১ → ০১৭৩৪৬৬৭৯৪৯ → ০১৭৯৮৪৭০২৪৭। সূত্রঃ জুমবাংলা নিউজ

আরোও পড়ুনঃ লো’ভী মেয়ে চেনার সহজ ৭ টি উপায়
পৃথিবীতে অনেক ধ’রণেরই নারী আছে। তবে একেকজন একেক রকম হয়ে থাকে। কারো সাথেই কারো মিল খুঁ’জে পাওয়া যায় না। আর এদের মাঝেই আছে ভীষণ রকম লো’ভী মানুষ। লোভের জন্য তারা যে কোন কিছু ক’রতেও দ্বি’ধা ক’রেন না।

ধ’রুণ, এই লো’ভী মেয়েদের কেউ যদি আপনার ভালোবাসার মানুষ হয়ে থাকেন! তাহলে নি’শ্চয় বি’পদে পড়বেন আপনি। এ ক্ষে’ত্রে সে কিন্তু স’র্বদা নিজে’র স্বার্থে আপনাকে ব্যবহার করবে, দিন শেষে আপনার মনে হবে আপনি একটি পাপোশের মতন। আর তাই এই লোভী মানুষগুলোকে চিনে রাখাটা ভী’ষণ জ’রুরী নয় কি? তাহলে কীভাবে চিনবেন?

১। লো’ভী প্রকৃত মেয়েগুলো সাধারণত মিষ্টিভাষী হয়ে থাকেন। এদের কথায় মিষ্টতা থাকে। মিষ্টি কথা বলে এরা মানুষকে ভু’লিয়ে রাখতে পারেন। এদের কথা শোনে আপনার হবে সে প্রচ’ণ্ড রকম ভালো একজন মেয়ে। সে কোন অ’ন্যা’য় ক’রতেই পারে না। এমনকি সে সবসময় আপনার মন যোগানোর চেষ্টা ক’রে থাকবে। এরা আপনার সাথে ভালো ব্যবহার ক’রে আপনাকে বি’পদে ফে’লে দিতে পারে যেকোনো মু’হূর্তে।

২। লোভী প্রকৃতির মেয়েদের অনেক ব’ন্ধু থাকে। তবে এদের প্র’কৃত ব’ন্ধু থাকে না। প্রতি মু’হুর্তেই এদের ব’ন্ধুত্বের ব’দল হয়। আজ একজন তো কাল আরেকজন। এরা শুধু প্রয়োজনেই মানুষের সাথে মিশে থাকেন। প্রয়োজন শেষ হলে যতদ্রু’ত সম্ভব এরা কে’টে পরে। এক ব’ন্ধুর থেকে আরেক ব’ন্ধুর কাছে সুযোগ বেশি পেলে তারা ব’ন্ধুত্ব ন’ষ্ট ক’রতেও দ্বি’ধাবোধ ক’রেন না।

৩। লো’ভী মেয়েরা সবসময় যা করবে হিসেব ক’ষে ক’রে। এরা হুটহাট ক’রে কিছু ক’রে না। এদের মধ্যে সবসময় এটা না, ওটা, এমন একটা ভাব লক্ষণীয়। যেখানে এদের লাভ থাকে বেশি সেদিকেই এরা যায়। ওটার চেয়ে এটাতে যদি এদের লাভ বেশি হয়, তাহলে তারা এটা ক’রতেই স্বা’চ্ছন্দ্যবোধ ক’রে।

৪। লো’ভী মেয়েরা একার যদি কোন জিনিসের প্রতি আক’র্ষিত হয় তাহলে এরা কখনই অল্পতে স’ন্তুষ্ট থাকে না। তাই নিজে’র চা’হিদা মে’টানোর জন্য এরা যত স’ম্ভব মানুষের কাছে যায়। উ’দ্দেশ্য একটাই ওটা আমা’র চাই-ই চাই।

৫। এদের সব কিছুতেই একটা তাড়া’হুড়োভাব থেকে যায়। এরা কোন কিছুই স্থী’রভাবে ক’রে না। তবে এরা কখনই একটা কাজ ক’রে থেমে থাকে না। এরা কখনোই কোনো কিছুর লো’ভ সা’ম’লাতে পারে না।

৬। লো’ভী প্রকৃত মেয়েগুলো সবসময় অনেক বেশি কথা বলে। বলতে গেলে এরা বাচাল প্রকৃতির হয়ে থাকে। একবার কথা শুরু করলে এরা থা’মতে চায় না। তবে এমন কোন কথা এরা বলে না যা অন্যের রা’গের কারণ হতে পারে। ভালো কথাই মিষ্টি স্বরে বলে।

৭। এরা মানুষকে উত্য’ক্ত ক’রতে বেশি পছন্দ ক’রে। বিভিন্নভাবে তারা সবাইকে উত্ত্য’ক্ত ক’রে থাকে। অতি’রিক্ত কথা বলে, বারাবার এক কথা বলে, যেকোনো জিনিসের জন্য ধ’রনা ধ’রে তারা সবাইকে উত্ত্য’ক্ত ক’রে বসে।

Related Articles

Back to top button