বিয়ের ১০ বছরেও সন্তান না হওয়ার কারণ জানালেন তিশা

272

বহুল আ’লো’চিত এক দম্পতি। মোস্তফা সরয়ার ফারুকী ও নুসরাত ইমরোজ তিশা। একজন নির্মাতা, অন্যজন অভিনেত্রী। ২০১০ সালের ১৪ জুলাই তারা বিয়ের পিঁড়িতে বসেন। তারপর ফের দুজনেই কাজে ব্যস্ত হয়ে প’ড়েন।

তাদের সুখের সংসারে কখনো কোনো খা’রাপ সংবাদ আসেনি। তবে সুসংবাদও আসেনি। তাদের সংসারের সবচেয়ে বড় সুসংবাদ হতে পারতো নতুন অতিথির আগমন। তা হলো না। খুব শীঘ্রই এমন কোনো সিদ্ধা’ন্তে তারা পৌছাবে বলেও মনে হয় না।

এ নিয়ে তিশা বলেন, ‘ আপাতত অভিনয় নিয়েই ব্যস্ত আছি। সামনে নতুন সিনেমা’র শু’টিং শুরু হবে। ভাবনায় আছে, তবে এখনি না। আ’সলে সন্তান নিলে যে অভিনয়ে খুব বেশি স’মস্যা হবে তা আমি মনে করি না। তবে সন্তান নিলে একটা লম্বা সময় কাজে’র বিরতি নিতে হবে। সবকিছু মিলিয়ে ভালো খবর খুব শীঘ্রই আসতেও পারে’।

তিশার এই বক্তব্যের পর সুসংবাদ শুনতে ভক্তদের আরো বেশি অপেক্ষা ক’রতে হবে বলেই মনে হচ্ছে। সূত্র-জুমবাংলানিউজ... আরোও পড়ুনঃ ক্যান্সার দূরে রাখে সরিষার তেল—– সরিষার তেল যেকোনো রান্নার স্বাদ বাড়িয়ে দেয় কয়েকগুণ। স্বাদ ও গন্ধ বৃ’দ্ধির পাশাপাশি খাবারকে পুষ্টিকর ক’রে তুলতে সরিষার তেলের জু’ড়ি নেই। এই তেলের রান্না হার্ট, হাড়, হজ’ম এবং স্না’য়ুতন্ত্রের জন্য স্বা’স্থ্যকর।

এতে মনোস্যাচুরেটেড এবং পলিআনস্যাচুরেটেড ফ্যাটি অ্যাসিডের উ’পস্থিতি রয়েছে। সরিষার তেল ফ্যাটি অ্যা’সিডের সমন্বয়ে গঠিত, যেমন -মনোস্যাচুরেটেড ফ্যাটি অ্যাসিড (৫৯ গ্রাম), স্যাচুরেটেড ফ্যাটি অ্যাসিড (১১ গ্রাম) এবং পলিআনস্যাচুরেটেড ফ্যাটি অ্যাসিড (২১ গ্রাম)।

খাবারের স্বাদ বাড়ায়: সরিষার তেলে অ্যালিল আইসোথায়োসাইনেট নামক এক রাসায়নিক যৌগ পাওয়া গেছে যা, তেলের তীব্র স্বাদের জন্য দায়ী। এই কারণেই এটি প্রতিটি খাবারের স্বাদ তুলনামূলকভাবে বাড়িয়ে তোলে।ক্যা’ন্সারের বিরু’দ্ধে ল’ড়াই ক’রে: ওমেগা-৩ পলিআনস্যাচুরেটেড ফ্যাটি অ্যাসিডযু’ক্ত ডায়েটরি সরিষার তেল,

ডায়েটরি ফিশ অয়েল বা কর্ন অয়েলের তুলনায় প্রা’ণীদের কো’লন ক্যা’ন্সার হ্রা’স ক’রতে খুব কা’র্যকর। মূ’ত্রাশয় ক্যা’ন্সার রো’ধ ক’রে: সরিষার তেলে অ্যালিল আইসোথায়োসাইনেট নামে একটি রাসায়নিক যৌগ রয়েছে যা, মূ’ত্রাশয়ে ক্যা’ন্সারের বিকাশকে বা’ধা দেয়। সরিষার তেলের তীব্র গন্ধই এই ক্যা’ন্সার প্র’তিরো’ধকের কাজ ক’রে।

হৃদরো’গের ঝুঁ’কি কমায়: বিশ্বব্যাপী মৃ ত্যুর অ’ন্যতম প্রধান কারণ হলো করো’না রি হার্ট ডিজিজ । রান্নার তেলগুলো এই হার্টের রো’গের চিকিৎ’সা ও ঝুঁ’কি হ্রা’স ক’রতে গু’রুত্বপূর্ণ ভূমিকা পা’লন ক’রে। একটি জ’রিপে দে’খা গে’ছে, সরিষার তেল মনোস্যাচুরেটেড ফ্যাটি অ্যা’সিডযু’ক্ত যা কোলেস্টেরলের মাত্রা উ’ল্লেখযোগ্যভাবে হ্রা’স ক’রতে এবং হার্টের অসুখের ঝুঁ’কি ক’মাতে সাহায্য ক’রে।

প্র’দাহ হ্রা’স ক’রে: সরিষার তেল প্র’দাহজনিত রো’গ দূ’রে রাখে। ডায়েটে প্রতিদিন সরিষার তেল থাকলে তা শ’রীরের সংবেদনশীল স্নায়ুগু’লিকে সক্রিয় ক’রতে সহায়তা ক’রে। এছাড়াও, তেলে অ্যালিল আইসোথায়োসাইনেটের উপ’স্থিতি প্রদাহ হ্রা’স ক’রে।

ওজন কমাতে সাহায্য ক’রে: ডায়াসাইলগ্লিসারল সমৃ’দ্ধ সরিষার তেল উ’ল্লেখযোগ্যভাবে শ’রীরের ওজন হ্রা’স ক’রতে সহায়তা ক’রে। এটি শ’রীরের মোট কোলেস্টেরলের মাত্রা হ্রা’স ক’রতে সহায়তা ক’রে এবং শ’রীরের ভালো কোলেস্টেরলের মাত্রা বৃ’দ্ধি ক’রে। পাশাপাশি, এই তেল হজ’মেও সাহায্য ক’রে।