এবার ফাঁ’স হল, মুনমুনের স্বামীকে তালা’ক দেয়ার আসল কারণ…

8

চিত্রনায়িকা মুনমুন ও তার স্বামী মীর মোশাররফ হোসেনের বি’চ্ছেদ হয়েছে স’ম্প্রতি। মডেল, অভিনেতা ও প্রযোজক মোশাররফের ঠিকানায় বি’চ্ছেদ চেয়ে চিঠি পাঠিয়েছেন মুনমুন।

এবার এ নায়িকা জা’নালেন কি কারণে তাদের বি’চ্ছেদ হলো। মুনমুন বলেন, লকডাউনে আমা’র হাতের টাকা শেষ হয়ে যায়। দুই সন্তানকে নিয়ে সংসার আমাকেই চালাতে হতো।অনেক দিন ধ’রেই মোশাররফকে বলছিলাম সিনেমা বানানোর জন্য টাকা খরচ না করে ব্যবসা শুরু করার। কিন্তু সে শোনেনি। সংসারের খরচও দিচ্ছিলো না।

উপায় না দেখে স্টেজ ও যাত্রায় নাচ শুরু করি। কিন্তু শেষ পর্যন্ত মনে হলো আর হবে না। এ কারণেই বি’চ্ছেদে যেতে হলো বাধ্য হয়ে। মুনমুন আরো বলেন, তার‘পাগল প্রেমিক’ ছবিটি নিয়েই আমাদের মধ্যে মা’নসিক দ্বন্দ তৈরি হয়। অনেক টাকা বিনিয়োগ করেও সে ছবিটি নিয়ে এগোতে পারছিল না। তাকে বলেছিলাম, ছবির চিন্তা বাদ দিয়ে ব্যবসায় মনোযোগ দিতে।

কিন্তু সে শোনেনি। তখন আমা’র কাছে মনে হল আমি আর পরলাম না।মুনমুনের অ’ভিযোগ, স্বামী হিসেবে সে পরিবারকে সময় দিতো না। পরিবারের খরচও দিতো না। সংসার চালাতে মুনমুনকে স্টেজ ও যাত্রায় নাচতে হতো। এদিকে ঈদের দুদিন আগে মুনমুনের ভাইয়ের কাছ থেকে বি’চ্ছেদের চিঠি পান মোশাররফ হোসেন।

প্রসঙ্গত, ২০০৩ সালে সিলেটের এক ব্যবসায়ীকে বিয়ে করে যুক্তরাজ্যে চলে যান মুনমুন।২০০৬ সালে তাদের বি’চ্ছেদ হয়। দেশে ফি’রে আবারও কাজে মনোযোগী হন তিনি। যাত্রায় অভিনয় ক’রতে গিয়ে পরিচয় হয় মীর মোশাররফ হোসেনের স’ঙ্গে ।

২০০৯ সালে মুনমুন বিয়ে করেন মোশাররফকে। বিয়ের দুই বছরের মাথায় তাদের দূ’রত্ব তৈরি হতে শুরু করে। অবশেষে ভে’ঙেই গেলো তাদের সংসার। সালমান ও যশ নামে তাদের দুই ছেলে আছে। তারা দুজনই মায়ের স’ঙ্গে থাকে।