শাশুড়ির করা প’র্নোগ্রা’ফি মা’মলায় জামাই গ্রে’ফতার

14

লালমনিরহাটের হাতীবান্ধায় শাশুড়ির দা’য়ের করা প’র্নোগ্রা’ফি নিয়’ন্ত্রণ আই’নের মাম’লায় জামাইকে গ্রে’ফতার করেছে পু’লিশ। শনিবার (২২ আগস্ট) রাতে নীলফামা’রী জে’লার জলঢাকা থা’না পু’লিশের সহযো’গিতায় ওই এলাকা থেকে জামাই ইকবাল হোসেন মান্নাকে গ্রে’ফতার করে হাতীবান্ধা থা’না পু’লিশ।

হাতীবান্ধা থা’নার ভারপ্রাপ্ত ক’র্মকর্তা (ওসি) ওমর ফারুক জা’নান, হাতীবান্ধা উপজে’লার টংভাঙ্গা ইউনিয়নের বাড়াইপাড়া এলাকার মানিক মিয়ার পুত্র ইকবাল হোসেন মান্নানের (৩০) স’ঙ্গে পার্শ্ববর্তী সির্ন্দুনা ইউনিয়নের এক মেয়ের স’ঙ্গে প্রথমে প্রেম পরে বিয়ে হয় গত বছরের নভেম্বর মাসের প্রথম সপ্তাহে। ভালোই চলছিল তাদের সংসার।

চলতি বছরের গত তিন মাস ধ’রে উভ’য়ের পছন্দ আর অ’পছন্দের কিছু বিষয় নিয়ে দাম্প’ত্য জীবনে কলহ চলে আসছিল। তিনি আরও বলেন, একপর্যায়ে মেয়েটি চলে যায় তার বাবার বাড়িতে এবং সেখানেই অব’স্থান করেন। এ অব’স্থায় ইকবাল হোসেন মান্না তার স্ত্রী'র স’ঙ্গে বিভিন্ন সময় তোলা অ’ন্তর’ঙ্গ স্প’র্শকা’তর কিছু ছবি,

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুক ম্যাসেঞ্জারে তার আ’ত্মীয়দের পাঠায়। এ ঘ’টনায় প্রতিকার চেয়ে ওই মেয়ের মা বাদী হয়ে হাতীবান্ধা থা’নায় তার মেয়ে জামাই ইকবাল হোসেন মান্নানের বিরু’দ্ধে শনিবার হাতীবান্ধা থা’নায় প’র্নোগ্রা’ফি নিয়’ন্ত্রণ আ’ইনে মাম’লা দা’য়ের করেন। পরে পু’লিশ ওইদিন রাতেই পার্শ্ববর্তী নীলফামা’রী জে’লার জলঢাকা থা’না পু’লিশের সহযো’গিতায়,

ওই এলাকার একটি বাড়ি থেকে ইকবাল হোসেন মান্নাকে গ্রে’ফতার করে পু’লিশ। গ্রেফ’তারকৃত ইকবাল হোসেন মান্নাকে রোববার লালমনিরহাট জে’লা জজ আদালতে সোপর্দ করলে আদালত তার জা’মিন নামঞ্জুর করেন।