শাশুড়ির অনশনের পর সেই উকিল জামাই বিয়ে করলেন শাশুড়িকে

15

টাঙ্গাইলের সখীপুরে সেই উকিল মেয়ের জামাই সাইদুল ইসলাম (৪৫) তার শাশুড়িকে (৫০) বিয়ে ক’রেছেন। গত কয়েক দিন আগে ৮ লাখ টাকা কাবিনে এ বিয়ে সম্পন্ন হয়।

স্থা’নীয় ইউপি সদস্য মজিবুর রহমান ফকির বিষয়টি নি’শ্চিত ক’রেছেন। জা’না যায়, গত ২৯ জুন সোমবার বিয়ের দা’বিতে উকিল মেয়ের জামাই সাইদুল ইসলামের বাড়িতে ওই শাশুড়ি অনশন করেন। সাইদুল উপজে’লার কালিয়া ইউনিয়নের বড়চওনা-কুতুবপুর কলেজ মোড় এলাকার আবুল কারীর ছেলে। স্থা’নীয়রা জা’নান,

সাইদুলের প্রথম বিয়ের উকিল শ্বশুর হন ওই ইউনিয়নের শাপলা পাড়া গ্রামের ডাবলু মিয়া। এরই সুবাদে সাইদুল ডাবলুর বাড়িত নিয়মিত যাওয়া আসা করত। একপর্যায়ে ডাবলু মিয়ার স্ত্রী'র স’ঙ্গে সাইদুলের প্রেমের স’স্পর্ক গড়ে ওঠে। পরে তাকে বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে দীর্ঘদিন ধ’র্ষণ করে। কিন্তু টালবাহানা করে বিয়ের ক্ষেত্রে! এক পর্যায়ে উকিল শাশুড়ি বিয়ের দা’বিতে উকিল মেয়ের জামাইয়ের বাড়িতে অনশন করেন।

স্থা’নীয় ইউপি সদস্য মজিবুর রহমান ফকির বলেন, উকিল শাশুড়ির স’ঙ্গে সাইদুলের প’রকীয়া স’স্পর্ক থাকায় প্রথম স্ত্রী তাকে ছে’ড়ে চলে যায়। স’ম্প্রতি সাইদুলের স’ঙ্গে ওই উকিল শাশুড়ি আপ’ত্তিকর অব’স্থায় স্থা’নীয়দের কাছে ধ’রা খায়। পরে বিয়ের দা’বিতে ওই নারী উকিল জামাইয়ের বাড়িতে অনশন করেন।

অনশনের কিছুদিন পরে সাইদুল তার উকিল শাশুড়িকে জে’লা আদালতে গিয়ে ৮ লাখ টাকা কাবিনে বিয়ে করে। অনশনের সময় ওই গৃহবধূ জা’নিয়েছিলেন, সাইদুল তাকে বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে দীর্ঘদিন ধ’রে ধ’র্ষণ করে আসছিলো। পরে তাকে বিয়ের কথা বলা হলে নানা তালবাহানা করে। উপায়ান্তর না পেয়ে বিয়ের দা’বিতে তার বাড়িতে আ’সছেন।