ধ’র্মের বোন বানিয়ে শারী’রিক স’ম্পর্ক, অতঃপর চাপে পড়ে..

15

আশুলিয়ায় চাঞ্চল্যকর রত্না হ’ত্যাকা’ণ্ডের তিনদিনের মধ্যেই অ’ভিযান চালিয়ে আ’সামি ইলিয়াসকে (২৫) ঝিনাইদহ থেকে গ্রে’ফতার করেছে পু’লিশ।বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন আশুলিয়া থা’নার উপ-পরিদর্শক আল মামুন কবির।

গ্রে’ফতারকৃত ইলিয়াস মাগুরা জে’লার শ্রীপুর থা’নার সফি মণ্ডলের ছে’লে। তিনি আশুলিয়ার জামগড়ায় একটি পোশাক কারখানায় চাকরি করতো।আশুলিয়া থা’নার উপ-পরিদর্শক আল মামুন কবির বলেন, নি’হত রত্না ও আ’সামি ইলিয়াসের কাহিনী সিনেমাকেও হার মানায়। গ্রে’ফতারকৃত আ’সামি ইলিয়াস জামগড়া এলাকায় একটি পোশাক কারখানায় চাকরি নেয়।

এসময় রত্না (৪০) নামের এক নারীকে তিনি ধ’র্মের বোন বানায়। একসময় তাদের মধ্যে শারী’রিক স’ম্পর্ক তৈরি হয়। পরে রত্না বেগম ইলিয়াসকে বিয়ে করার জন্য তার ১৬ বছরের মে’য়ে রেখে আগের স্বামীকে তালা'ক দেয়। অন্যদিকে রত্নাকে না জানিয়ে ইলিয়াস এক মে’য়েকে বিয়ে করলেই ঘটে বিপত্তি। রত্নাকে আগের মতো সময় দিতে পারে না ইলিয়াস।

এই নিয়ে তাদের মধ্যে ঝগড়া ও মা’রামা’রি লেগেই থাকতো। অবশেষে দু’দিকের চাপ সামলাতে না পেরে রত্নাকে রাতের আধারে শ্বা’স’রোধ করে হ’ত্যা করে তিনি পালিয়ে যান। পরে নি’হতের ভাইকে ফোন করে রটনার মৃ’ত্যুর খবর জানায় ইলিয়াস। তিনি আরও বলেন, ম’রদেহ উ’দ্ধারের পর থেকেই পু’লিশ সুপারের নির্দেশে,

ইলিয়াসকে গ্রে’ফতার জন্য অ’ভিযান পরিচালনা করা হয়। ৩ দিনের শ্বা’সরুদ্ধ অ’ভিযান শেষে তাকে ঝিনাইদহ থেকে গ্রে’ফতার করা হয়।। প্রসঙ্গ, গত বুধবার (১৭ জুন) জামগড়া বেরন এলাকার বাবুল মিয়ার ভাড়া বাড়ির একটি তালাবদ্ধ কক্ষ থেকে রত্নার ম’রদেহ উ’দ্ধার করে পু’লিশ।